গঙ্গার নীচে দিয়ে চলবে মেট্রো, ভ্রমন হবে আর্কষনীয়

এ বছর হুগলি নদীর নিচ দিয়ে ইস্ট- ওয়েস্ট মেট্রোর চলাচল শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ভারতে মেট্রো তার পরিষেবার স্বপ্ন পূরণ করবে। ইস্ট- ওয়েস্ট মেট্রো করিডরের যাত্রীরা হাওড়া ময়দান থেকে সল্টলেক সেক্টর ফাইভ পর্যন্ত যাতায়াত করতে পারবেন হুগলি নদীর নিচ দিয়ে এই

সংযোগ স্থাপন হলেই। আর্থ প্রেসার ব্যালেন্সিং টানেল বোরিং মেশিনের সাহায্যে রবীন্দ্র সেতুর (হাওড়া ব্রিজ) ৩৫০ মিটার নিচের দিকে অবস্থিত দুটি সুবিশাল সুড়ঙ্গ খনন করা হয়েছে। এই টানেল তৈরি করা হয়েছে ৬৬ দিনে যা নির্মাণ কার্যে এক রেকর্ড। নদীর নিচে এই টানেলের দৈর্ঘ্য ৫২০ মিটার।

আর এই চমৎকার টানেলের সাহায্যেই হুগলি বা গঙ্গা নদীর পার্শ্ববর্তী দুই শহর হাওড়া ও কলকাতাকে শহরকে যুক্ত করবে। যা কয়েক বছর আগেও ভাবা যেত না। দুই পাড়কে জুড়ে দিচ্ছে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো। সেই মেট্রো চড়ে হাওড়া ময়দান থেকে হাওড়া স্টেশন হয়ে বিবাদি বাগ, ধর্মতলা, শিয়ালদা ছুঁয়ে চলে আসা যাবে সেক্টর ফাইভে। এই মেট্রো রুটের শিয়ালদা থেকে সেক্টর ফাইভের অংশ ইতিমধ্যেই চালু হয়ে গিয়েছে। নির্মাণ সম্পূর্ণ হয়েছে হাওড়া ময়দান ও ধর্মতলার অংশেরও। এখনও নির্মাণকাজ চলছে ধর্মতলা থেকে শিয়ালদা পর্যন্ত অংশের। সব কিছু ঠিক থাকলে চলতি বছরে লোকসভা নির্বাচনের আগেই হাওড়া ময়দান থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত অংশে মেট্রো পরিষেবা চালু হয়ে যাবে। সেই অংশেই থাকছে গঙ্গার নিচ দিয়ে সুড়ঙ্গ। এবার সেই সুড়ঙ্গ পার হতে গিয়ে মেট্রোর যাত্রীরা যাতে বুঝতে পারেন যে ট্রেন গঙ্গার নিচ দিয়ে যাচ্ছে তার জন্য সেই সুড়ঙ্গে ‘অ্যাকোয়ারিয়াম এফেক্ট’ আনা হচ্ছে। আপ ও ডাউন দুটি লাইনের সুড়ঙ্গেই থাকছে সেই বিশেষ প্রযুক্তিগত ব্যবস্থা। মেট্রো কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, জলের নিচে এই ৪৫ সেকেন্ড যাত্রার জন্য এমন ব্যবস্থা নিচ্ছে যাতে সমস্ত যাত্রীদের কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকে।

Read Also: গঙ্গাসাগর মেলার শেষ মুহূর্তের তৎপরতা তুঙ্গে

গঙ্গার নিচ দিয়ে মেট্রো চড়ার অনুভূতি কেমন হবে তা নিয়ে অনেক মানুষেরই কৌতুহল তুঙ্গে রয়েছে। যদিও গঙ্গার জলস্তরের থেকে ৩৩ মিটার নিচে তৈরি হওয়া দুই সুড়ঙ্গেই আদতে বোঝা সম্ভব নয়, ওপরে ঠিক কী রয়েছে। ঠিক যেমনটি কলকাতার দমদম থেকে টালিগঞ্জ অংশে বোঝা যায় না সুড়ঙ্গের ওপরে ঠিক কী রয়েছে। সেই রকমই ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর সুড়ঙ্গেও তা বোঝা সম্ভব নয়। কিন্তু যেহেতু দেশের মধ্যে এই প্রথম কোনও নদীর নিচ দিয়ে মেট্রো রেল নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, তাও আবার গঙ্গা, তাই ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো কর্তৃপক্ষ চাইছে এই অংশের যাত্রা যেন সকল যাত্রীদের কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকে। কলকাতা মেট্রো সূত্রে জানানো হয়েছে, এই অস্বচ্ছ টানেলগুলি অভ্যন্তরীণ ব্যাস ৫.৫৫ মিটার। ২৭৫ মিমি পুরু আরসিসি সেগমেন্টাল স্থায়
লাইনার রয়েছে। তবুও যাত্রীদের মনে হবে যে তারা হুগলি নদীর নিচে ভ্রমণ করছেন। এর জন্য, চলন্ত রেকের চারপাশে জলের প্রভাব দেওয়ার জন্য নীল আলোর সঙ্গে নদীর অভ্যন্তরের দেওয়ালের বিশেষ আলোকসজ্জা করা হয়েছে।

সঙ্গে নজরে আসবে আলোকিত মাছও। এই ধরনের ৪০টা আলোকিত মাছের প্রতিকৃতি সাজানো হয়েছে সুড়ঙ্গের ভিতরের যেগুলো দেওয়ালে সাঁতার কাটছে বলে মনে হবে। উদ্যোগে রয়েছে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বহুজাতিক কোম্পানি ফিলিপস। এর পাশাপাশি মেট্রো রেলও কিছু বিশেষ সাউন্ড এফেক্ট নিয়ে চিন্তাভাবনা করছে যাতে এই মেট্রো যাত্রা স্মরণীয় হয়ে থাকে।

Leave a Comment

Karmasangsthan News is a West Bengal lading Bengali Online News Website, Which provide all the Job news, Educational news, Trending News, Entertainment And Others, All the post write in local language i.e; bengali, so the all candidates can read carefully.

Site Links

Karmasangsthan.Live

Employment

Educational

Upcoming